‘টেনশন নেই’ বলে পাকিস্তান গেলেন ক্রিকেটাররা | The Daily Star Bangla
০৮:৪৪ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২২, ২০২০ / সর্বশেষ সংশোধিত: ১১:২১ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২২, ২০২০

‘টেনশন নেই’ বলে পাকিস্তান গেলেন ক্রিকেটাররা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা, উদ্বেগ আর আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে বিশেষ বিমানে চড়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পাকিস্তানের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। বুধবার (২২ জানুয়ারি) রাত আটটায় বাংলাদেশ দলকে নিয়ে লাহোরের পথে যাত্রা করেছে বিমান বাংলাদেশের চার্টার্ড ফ্লাইট। যাওয়ার আগে বিমানবন্দরে কোন দুর্ভাবনা না থাকার কথা জানিয়ে গেছেন ক্রিকেটাররা। 

ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের উড়োজাহাজ ক্রিকেটারদের নিয়ে লাহোরে পৌঁছানোর কথা স্থানীয়  সময় রাত সাড়ে দশটায় (বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১১টা)। পাকিস্তানে সরাসরি কোনো ফ্লাইট না থাকায় বিশেষ ব্যবস্থাপনায় বিমান ভাড়া করে দলকে পাকিস্তানে খেলতে পাঠিয়েছে বিসিবি।

টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডের ১৫ ক্রিকেটারের সঙ্গে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোসহ পাঁচ কোচিং স্টাফ, ম্যানেজার, মিডিয়া ম্যানেজার এবং একজন সাপোর্ট স্টাফ রয়েছেন।

ভিন্ন রকম পরিস্থিতির এই সফরের আগে খেলার বাইরের ইস্যু আলোচনার বড় অংশ কেড়ে নিলেও ক্রিকেটাররা তা থেকে প্রভাবিত না হয়ে মন রাখছেন খেলায়। 

সৌম্য সরকার

‘হ্যাঁ, অবশ্যই দায়িত্ব নিয়ে আমাকে খেলতে হবে। যে দায়িত্ব থাকবে, সেই অনুযায়ী খেলার চেষ্টা করব। চেষ্টা করব শত ভাগ দিতে। কোনো টেনশন কাজ করছে না। চিন্তা করলে এটা বাড়বেই। তাই চিন্তা করছি না।’

মোহাম্মদ মিঠুন, ক্রিকেটার

 
'অবশ্যই আমরা প্রতিটি ম্যাচই জেতার জন্য খেলবো। ম্যাচ বাই ম্যাচ আমাদের সেরাটা দেবার চেষ্টা করবো। আর পারসোনালি চেষ্টা করবো আমি যে সময়েই নামি দলের জন্য অবদান রাখার জন্য।'

 
শফিউল ইসলাম, ক্রিকেটার
 
'না, না, না। কোন টেনশন না। যেহেতু বোর্ড সবকিছু চেক করেই পাঠাচ্ছে, তাই কোন টেনশন নেই। ভালো করে দেশে যেনো ফিরতে পারি, ভালো কিছু নিয়ে আসতে পারি এটাই প্রত্যাশা।'


'আমিও লাস্ট ইমার্জিং কাপে গিয়েছি। নিরাপত্তা নিয়ে কোন ইস্যু ছিলো না। ঐ কারণেই সাহসটা আরো বেশি পেয়েছি। আরো যেহেতু ন্যাশনাল টিমের খেলা বোর্ড আশ্বস্ত বলেই যাচ্ছে। আমার ব্যক্তিগত দিক থেকে কোন আপত্তি নেই, বোর্ড সেফ ভেবেছে বলেই পাঠাচ্ছে।'



পাকিস্তানে গিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজের আগে অবশ্য খুব একটা প্রস্তুতির সুযোগ নেই মাহমুদউল্লাহর দলের। আগামীকাল বৃহস্পতিবার হালকা অনুশীলন সেশনের পর ২৪ জানুয়ারি দুপুর ৩টায় লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে নামবে দুদল। ২৫ জানুয়ারি একই ভেন্যুতে হবে পরের ম্যাচ। ২৬ জানুয়ারি বিরতির পর ২৭ জানুয়ারি তৃতীয় টি-টোয়েন্টি খেলে পরদিন একই ব্যবস্থাপনায় দেশে ফিরবেন ক্রিকেটাররা।

Stay updated on the go with The Daily Star Android & iOS News App. Click here to download it for your device.

Grameenphone and Robi:
Type START <space> BR and send SMS it to 2222

Banglalink:
Type START <space> BR and send SMS it to 2225

পাঠকের মন্তব্য

Top